HSC ICT Chaper 4 Part 1 | Introduction to Web Design and HTML Part 1

HSC ICT Chapter 4 Part 1 : Introduction to Web Design and HTML Part 1 । ওয়েব ডিজাইনার ধারণা(Concept of web Design) কি? | ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (World Wide Web–www/w3) কি? | নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট (Network and Internet) কি? | ওয়েব পেইজ (Web Page) কি? | স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট (Static Website) কি? । ডাইনামিক ওয়েবসাইট (Dynamic Website) কি? | ওয়েবসাইটের সুবিধা (Advantage of Website) কি? | ব্যবহারের ভিত্তিতে ওয়েবসাইটের শ্রেণিবিভাগ


ওয়েব ডিজাইনার ধারণা(Concept of web Design) কি?

ওয়েব ডিজাইন হচ্ছে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (World Wide Web) এর মাধ্যেমে বিভিন্ন বিষয়বস্তু নান্দনিক ভাবে বিশ্ববাসীর কাছে উপস্থাপন করার একটি শিল্প। রং তুলির ছোঁয়ায় শিল্পী যেমন তার চিত্রর্কম ফুটিয়ে তোলেন ঠিক তেমনি ওয়েব ডিজাইনারগণ বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে তৈরি করেন বিচিত্র ও সুন্দর সব ওয়েব পেইজ। ওয়েব ডিজাইন বলতে মূলত ওয়েব পেইজ তৈরিতে সম্পর্কিত বিভিন্ন কার্যক্রমের সমষ্টি বা ওয়েব পেইজের frontend ডিজাইন বোঝায়।


ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব (World Wide Web–www/w3) কি?

ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব হচ্ছে বিশ্বজাল। www কে অধিকাংশ সময়ই ওয়েব (Web)নামে ডাকা হয়। Web হল বিশ্বজুড়ে ছিড়য়ে থাকা সকল কম্পিউটারের একটি নেটওয়ার্ক। যা বিশ্বব্যাপি বন্টিত dynamic interactive graphical hyper text information system যা ইন্টারনেট রান করে। www কে ইন্টারনেটের বুলেটিন ও বলা হয়। তিনটি প্রযুক্তির সমন্বয়ে ওয়েব গড়ে উঠেছে। যথা -

  1. HTML (Hypertext Markup Language) যার দ্বারা Web page লেখা হয়।
  2. HTTP (Hyper Text Transfer Protocol) যার দ্বারা Server computer ওয়েব ট্রন্সমিট বা প্ররণের কাজ করে।
  3. Web Browser : যে পোগ্রাম ডেটা রিসিভ ও অনুবাদ করে client কে তার ফলাফল প্রদর্শন করে।

নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট (Network and Internet) কি?

দুই বা ততোধিক ডিভাইস্ (যেমন-কম্পিটার, প্রিন্টার, ইত্যাদি) পরস্পর যুক্ত হয়ে গঠিত হয় নেটওয়ার্ক বলে। এই সংযুক্তি দু 'ভাবে হতে পারে যেমন-

  1. তারযুক্ত (Wierd Media) এবং
  2. তারছাড়া (Wireless Media)।

আর একটি নেটওয়ার্কের সাথে অন্য এক বা একাধিক নেটওয়ার্কের যোগাযোগ ব্যবস্থা হলো ইন্টারনেট।


ওয়েব পেইজ (Web Page) কি?

HTML নামক markup language এর উপর ভিত্তি করে তৈরিকৃত ডকুমেন্টগুলোকে বলা হয় ওয়েব পেইজ। অনেক গুলো ওয়েব পেইজের সম্বনয়ে গঠিত হয় ওয়েবসাইট। সাধারণত লেখা, অডিও, ভিডিও, স্থিরচিএ, এনিমেশন, ইত্যাদির সম্বনয়েওয়েব পেইজ বা ওয়েবসাইট গঠিত হয়।

গঠনগত বৈচিত্র্যের উপর ভিত্তি করে ওয়েবসাইট দুই প্রকার। যথা-

  • স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট (Static Website)|
  • ডাইনামিক ওয়েবসাইট (Dynamic Website)।

স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট (Static Website) কি?

স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট (Static Website): যে ওয়েবসাইটের ডেটার মান ওয়েব পেইজে চালু (loading) করার পর পরির্বতন করা যায় না, তাকে স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট বলে। স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট শুধু HTML মার্কআপ ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়েই তৈরি করা যায়।

স্ট্যাটিক ওয়েবসাইট এর বৈশিষ্ট্য / সুবিধা / অসুবিধাসমূহ:-

  • কনটেন্ট নিদিষ্ট থাকে।
  • ব্যবহারকারী তথ্য আপলোড বা আপডেড করতে পারে না।
  • খুব দ্রুত লোড হয়।
  • কোন ডেটাবেইজ থাকে না।
  • কেবলমাত্র সার্ভার থেকে ক্লায়েন্ট একমুখী কমিউনিকেশন হয়।
  • শুধু HTML ও CSS ব্যবহার করেই এটি উন্নয়ন করা যায়।
  • খরচ কম ও নিরাপদ বেশি।
  • ওয়েবসাইট উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ খুব সহজ।
  • খুব সহজেই scarch engine পরিচালনা করা যায়।
  • কনটেন্ট আপলোড হতে অনেক সময় লাগে।
  • মানসম্মত ওয়েব পেইজ ডিজাইন অত্যন্ত কষ্টসাধ্য এবং সময়সাপেক্ষ।
  • বড় সাইজের ওয়েবসাইটের জন্য প্রযোজ্য নয়।

ডাইনামিক ওয়েবসাইট (Dynamic Website) কি?

ডাইনামিক ওয়েবসাইট (Dynamic Website): যে সকল ওয়েব সাইটের ডেটার মান ওয়েব পেইজে চালু (loading) করার পর পরিবর্তন করা যায় তাকে ডাইনামিক ওয়েবসাইট বলে ডাইনামিক ওয়েবসাইট তৈরির জন্য HTML scripting ভাষার সাথে আরো কিছু ভাষা যেমন- PHP, ASP, Javascript এবং একটি ডেটাবেইজ এর প্রয়োজন হয়।

ডাইনামিক ওয়েবসাইট এর বৈশিষ্ট্য / সুবিধা / অসুবিধাসমূহ:-

  • পরিবর্তনশীল তথ্য বা interactive ওয়েব পেইজ থাকে।
  • Loading এর সময় পেইজের ডিজাইন বা কনটেন্ট পরিবহন হতে পারে।
  • ডেটাবেইজ ব্যবহ্ত হয় ফলে কুয়েরি (Search) করে তথ্য বের করার সুযোগ থাকে।
  • যে কোন সময় ব্যবহারকারী তথ্য আপলোড বা তথ্য আপডেড করতে পারে।
  • আকর্ষণীয় ও ইন্টারেক্টিভ লে–আউট তৈরি করা যায়।
  • ব্রাউজিং সময় বেশি লাগে।
  • উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ তুলনামূলক জটিল।
  • ওয়েবসাইট উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ খুব সহজ।
  • খরচ বেশি।
  • এ ধরনের ওয়েবসাইট উন্নয়ন PHP, Perl, ASP.net, JavaScript, ইত্যাদি ভাষা ব্যবহ্ত হয়।
আবার অবস্থানের উপর ভিত্তি করে ওয়েবসাইট দুই প্রকার। যথা-
  1. লোকাল ওয়েব পেইজ বা ওয়েবসাইট(Local Web Page Or Website)।
  2. রিমোট ওয়েব পেইজ বা ওয়েবসাইট (Remote Web Page Or Website)।

ওয়েবসাইটের সুবিধা (Advantage of Website) কি?

গ্লোবালাইজেশনের (globalization) এই যুগে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের পরিচয় তুলে ধরার একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে ওয়েবসাইট। কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নিজেস্ব ওয়েবসাইট থাকলে তাকে বা প্রতিষ্ঠানকে বিশ্বের যে কোন মানুষ চিনতে বা জানতে পারবে অনায়াসে। ওয়েবসাইট ছাড়া বর্তমানে কোন কিছু চিন্তাই করা যায় না। বর্তমানে দেশি বা বিদেশি সব ধরণের প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট রয়েছে। বিশেষ করে বিভিন্ন কোম্পানি, ব্যাংক, বীমা, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, প্রভৃতি প্রতিষ্ঠানগুলোতে ওয়েবসাইট ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ওয়েবসাইটের বিভিন্ন সুবিধাসমূহ:-
  • ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নাম সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব।
  • খুব সহজেই সকল ধরনের তথ্য যেমন- অডিও, ভিডিও, ছবি, ইত্যািদি প্রচার এবং সংরক্ষণ করা যায়।
  • দ্রুততার সাথে তথ্য সংরক্ষণ ও আহরণ করা যায়।
  • বিনা মূল্যে বিজ্ঞাপন প্রচার করা যায়।
  • শিক্ষা গ্রহণ করা যায়।
  • প্রতিষ্ঠানের সাথে গ্রাহকের সরাসরি সম্পর্ক তৈরি করা যায়। পণ্যের চাহিদা ও বিক্রয় বৃদ্ধি করা যায়।
  • ঘরে বসে বাস, ট্রেন, প্লেনের টিকিট কাটা যায়।

ব্যবহারের ভিত্তিতে ওয়েবসাইটের শ্রেণিবিভাগ:

  • আর্কাইভ সাইট (Archive Site): এ সব সাইটে পুরনো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদি সকলের ব্যবহারের জন্য জমা রাখা হয়।
  • বিজনেস সাইট (Business Site): ব্যবসায় প্রসার, প্রচার এবং ব্যবসায়িক সেবাদানের উদ্দেশ্য এসব সাইট তৈরি করা হয়।
  • ই-কর্মাস (E - Commerce Site): বিভিন্ন পণ্য ক্রয়- বিক্রয়ের জন্য এ সব ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়।
  • কমিউনিটি সাইট (Community Site): বিভিন্ন ব্যক্তি একসাথে যোগাযোগের জন্য এ সব সাইট তৈরি। এতে মেসেজ বোর্ড থাকে।
  • ডাউনলোড সাইট (Download Site): সফটওয়্যার, ওয়ালপেপার অডিও, ভিডিও, ইত্যাদি এ সব সাইট হতে ডাউনলোড করা যায়।
  • গেইম সাইট (Gaming Site): এরুপ সাইটগুলো একেকটি নিজেই কম্পিউটার গেইমের বিচরণক্ষএ। এসব সাইটে সরাসরি গেইম খেলা যায়।
  • নিউজ সাইট (News Site): এখানে কেবল চলমান বিশ্বের বিভিন্ন ধরনের সংবাদ তাৎক্ষণিকভাবে সরবরাহ করা হয়।
  • সরকারি সাইট (Government Site):সরকারি প্রতিষ্ঠানের তথ্য প্রদর্শন করার জন্য সরকারি সাইট তৈরি করা হয়। এ সাইটের নামের শেষে .gov লিখা থাকে।
  • সার্চ ইঞ্জিন (Search Engine): কোন তথ্য বা ওয়েবসাইটকে অনলাইনে সহজে খুজে বের করার জন্য সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়।
  • হোস্টিং সাইট(Hosting Site): এ ধরণের ওয়েব সাইটে তথ্য সংরক্ষণ করার জন্য মেমরি স্পেস ক্রয় করা যায়।